বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দিন চুপ্পুর পরিচয়

সরকারি কর্মকর্তা থেকে রাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দিন চুপ্পুর পরিচয়

আওয়ামী লীগ, মো. সাহাবুদ্দিন চুপ্পুকে, দুদকের সাবেক কমিশনার, রাষ্ট্রপতি পদে মনোনয়ন দিয়েছে । রোববার (১২ ফেব্রুয়ারি) বেলা ১১টায় প্রতিনিধি দল নির্বাচন কমিশনে গিয়ে রাষ্ট্রপতি পদে সাহাবুদ্দিনের মনোনয়নপত্র দাখিল করা হয়।
মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার পর সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘এখন কোনো প্রতিক্রিয়া নেই। এটাই মহান আল্লাহর ইচ্ছা।’
ওবায়দুল কাদেরের নেতৃত্বে, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, একটি প্রতিনিধি দল, নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়ালের দফতরে যান এবং মনোনয়নপত্র দাখিল করেন।

সাহাবুদ্দিন চুপ্পুর পরিচয়

সাহাবুদ্দিন চুপ্পু পাবনায় ১৯৪৯ সালে জন্মগ্রহণ করেন। প্রফেসর ড. রেবেকা সুলতানা, তার স্ত্রী বর্তমান সরকারের সাবেক যুগ্ম সচিব ছিলেন। চুপ্পু এক পুত্রসন্তানের বাবা।
পেশায় সাহাবুদ্দিন চুপ্পু ১৯৮০ সালে আইনজীবি হিসেবে কাজ শুরু করেন। ১৯৮২ সালে বিশেষ বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে ক্যাডারের (বিচার) জন্য নির্বাচিত হয়ে সহকারী জজ পদে যোগ দেন। তিনি ২০০৬ সালে যুগ্ম জেলা জজ, অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ এবং জেলা ও দায়রা জজ পদে দায়িত্ব পালন করে অবসরে যান।
এছাড়াও তিনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের রাষ্ট্রীয় নিরাপত্তাসহ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ে ডেস্ক অফিসার ও পরিচালক হিসেবে হিসেবে ২বছর দায়িত্ব পালন করেন। দুর্নীতি দমন কমিশনের কমিশনার হিসেবে ২০১১ সালের ১৪ মার্চ তিনি নিযুক্ত হন এবং ২০১৬ সালে অবসরে যান। বর্তমানে তিনি এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের উপদেষ্টা হিসেবে ও ইসলামি ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড পরিচালনা পর্ষদের ভাইস চেয়ারম্যান দায়িত্ব পালন করছেন।
চুপ্পু বঙ্গবন্ধু হত্যা মামলায় আইন মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিযুক্ত সমন্বয়কারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন ।
দুদকের কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে বিশ্বব্যাংকের উত্থাপিত পদ্মাসেতু সংক্রান্ত দুর্নীতির অভিযোগ তদন্তে অন্যতম মুখ্য ভূমিকা পালন করেন সাহাবুদ্দিন। বিশ্বব্যাংকের অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণে তার প্রেরিত তদন্ত প্রতিবেদন কানাডা কোর্টে সমর্থিত হয়।
রাজনৈতিক জীবনে সাহাবুদ্দিন পাবনা জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি এবং ১৯৭৪ সালে পাবনা জেলা যুবলীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ১৯৭৫ সালে সংঘটিত বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড পর কারাবরণ করেন। তিনি আওয়ামী লীগের সর্বশেষ জাতীয় কাউন্সিলে নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button