রাষ্ট্রপতি মনোনয়ন প্রাপ্ত সাহাবুদ্দিন চুপ্পু

রাষ্ট্রপতি মনোনয়ন প্রাপ্ত সাহাবুদ্দিন চুপ্পু

অবসরপ্রাপ্ত মো. সাহাবুদ্দিন চুপ্পু, জেলা ও দায়রা জজ এবং দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সাবেক কমিশনার দেশের পরবর্তী রাষ্ট্রপতি হচ্ছেন। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ও প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের জন্য দলীয় প্রার্থী হিসেবে তার নাম চূড়ান্ত করেছেন।

আজ ১২ই ফেব্রুয়ারি রোববার নির্বাচন কমিশনে সাহাবুদ্দিন চুপ্পুর নাম  রাষ্ট্রপতি পদে দলীয় প্রার্থী হিসেবে দাখিল করেন। দাখিলের দায়িত্ব পালন করেন ওবায়দুল কাদের, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী । দাখিলের পরে  নির্বাচন কমিশন ভবনের সামনে তিনি এ বিষয়ে সাংবাদিকদের  ব্রিফ করেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, “বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে সাহাবুদ্দিনকে মনোনয়ন দিয়েছে। আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা কাছে গত ৭ ফেব্রুয়ারি পার্লামেন্টারি পার্টির বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে দায়িত্ব অর্পণ করা হয়। তিনি এ মনোনয়ন চূড়ান্ত করেছেন।”

২০০১ সালে যখন  বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় আসীন হয় ঠিক তার পরেই আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাদের ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জনগোষ্ঠীর ওপর হামলা হয়। ওই সময় ধর্ষণ, হত্যা ও  লুণ্ঠনের ঘটনাও ঘটতে থাকে। পরবর্তীতে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় বসলে ওসব ঘটনার তদন্তে সাহাবুদ্দিন চুপ্‌পু কে প্রধান করে ‘কমিশন’ গঠন করে ।

রাষ্ট্রপতি মনোনয়ন প্রাপ্ত সাহাবুদ্দিন চুপ্পু দুদকের কমিশনার হিসেবে ২০১১-১৬ সাল পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও প্রধানমন্ত্রী রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমামের মৃত্যুতে খালি থাকা প্রচার ও প্রকাশনা উপকমিটির চেয়ারম্যান পদে তাকে মনোনীত করা হয়।

আজ রোববার ১২ই ফেব্রুয়ারি বাংলাদেশের ২২তম রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন । সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টার মধ্যে মনোনয়নপত্র জমা দিতে হবে তফসিল মোতাবেক।

নির্বাচন কমিশন ঘোষনা অনুযায়ী তফসিল মোতাবেক, নিয়ম অনুযায়ী, রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র ‘নির্বাচনী কর্তা’র (প্রধান নির্বাচন কমিশনার) কার্যালয়ে দাখিল করতে হবে। সংসদে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ মনোনীত ব্যক্তিই হবেন আগামী ৫ বছরের জন্য বঙ্গভবনের নতুন বাসিন্দা।

আগামী ২৩ এপ্রিল রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। তবে সংবিধান অনুযায়ী, পরবর্তী রাষ্ট্রপতি নির্বাচিত হয়ে শপথ না নেওয়া পর্যন্ত বর্তমান রাষ্ট্রপতি নিজ পদে বহাল থাকবেন।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button