গাজীপুরের মেয়র পদে পুনর্বহাল জাহাঙ্গীর আলম 

মেয়র পদে পুনর্বহাল জাহাঙ্গীর আলম 

প্রায় এক বছর আগে দল থেকে বহিস্কৃত করা হয় গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের  সমালোচিত স্থানীয় এই নেতাকে। বহিষ্কারের পর থেকে এক বছর পর আবারও তাকে মেয়র পদে পুনর্বহাল করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। ঘটনার উল্লেখ করতে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবাইয় মন্ত্রী বলেন, “জাহাঙ্গীরকেতো গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র পদ থেকে বহিষ্কার করা হয়নি, বরং তাকে সাময়ীকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। যেসব কারণে সাময়ীকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছিলো তা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। মেয়র পদে ফেরার বিষয়টি মন্ত্রণালয়ের প্রক্রীয়াধীন রয়েছে।”

বহিষ্কৃত গাজীপুরের মেয়র পদে পুনর্বহাল জাহাঙ্গীর আলম:

 

গতকাল ২১ এ ডিসেম্বর বুধবার বিকেলে গাজীপুরের কালিয়াকৈরের মৌচাক জাতীয় স্কাউট প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে জাতীয় রেড ক্রিসেন্ট এর ১৪ তম স্বেচ্ছাসেবক ক্যাম্পের সমাপনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখতে গিয়ে মন্ত্রী এই বিবৃত দেন। 

তিনি অনুষ্ঠানে স্বেচ্ছাসেবকদেরকে লক্ষ্য করে আরো বলেন, “বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি স্বেচ্ছাসেবামূলক কার্যক্রমে দেশে অন্যতম দৃষ্টান্ত স্থাপনকারী প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানটি মানবসেবায় বহুমুখী অবদান রেখে আসছে। বিশেষত ভবিষ্যত প্রজন্মকে মানবিক মানুষ হিসেবে গড়ে তোলার পাশাপাশি জনহিতকর কাজেও উদবুদ্ধ করছে।” তিনি একই সাথে দেশের তরুণ সমাজকে জরুরী প্রয়োজনে স্বতস্ফুর্তভাবে এগিয়ে আসতে আহবান জানান। 

অনুষ্ঠানটিতে ফ্রান্স ও অস্ট্রিয়ার মাঝে ঘটা ১৮৫৯ সালে সংঘটিত সলফেরিনো যুদ্ধের পটভূমিতে রচিত একটি নাটক প্রদর্শিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির চেয়ারম্যান (অব.) জেনারেল এটিএম আব্দুল ওয়াহাব। তিন দিন ব্যাপী চলা এই ক্যম্পে বাংলাদেশ সহ মোট সাতটি দেশ থেকে প্রায় ১৫০০ জন স্বেচ্ছাসেবক অংশগ্রহণ করেছিলো।  

অপরদিকে গত ১৭ ডিসেম্বর শনিবার আওয়ামীলীগের জাতীয় কমিটির বৈঠকে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের শতাধিক আওয়ামী লীগ নেতা যারা ইতিপূর্বে স্থানীয় সরকার নির্বাচন নিয়ে বিপরীত অবস্থান নিয়েছিল তাদেরকে সাধারণ ক্ষমা প্রদান করেন দলের পক্ষ থেকে। যার প্রেক্ষিতে দলের বহিষ্কৃত গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গির আলমের কথা উঠে আসে।

এদিকে এই ঘোষণার প্রেক্ষিতে গাজীপুর বাসী ও মেয়র জাহাঙ্গীরের সমর্থকেরা পুনুরুজ্জীবিত হয়ে ওঠেন । তাদের মাঝে এক প্রকারের কৌতুহল দেখা যায় মেয়র জাহাঙ্গীরকে নিয়ে। নেতাকর্মীরা মেয়র জাহাঙ্গীরের বাসভবনের সামনে আনন্দ মিছিল বের করেন তাতক্ষণিক। 

উল্লেখ্য যে বিগত ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মেয়র জাহাঙ্গির আলমের একটি গোপন কথপোকথনের ভিডিও ছড়িয়ে পরে।  উক্ত ভিডিওতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান ও স্থানীয় জেলার উল্লেখযোগ্য নেতাদেরকে নিয়ে অপ্রাসঙ্গিক মন্তন্য করেন বলে অন্য নেতারা দাবী করেন।  এই ঘটনার জের ধরে একই বছর নভেম্বরের উনিশ তারিখে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সভায় মহানগর আওয়ামী লীগ ও গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র জাহাঙ্গীরকে বরখাস্ত করার কথা জানানো হয়।  পরবর্তীতে ২৫ নভেম্বর এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে তাকে মেয়র পদ থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। এতে করে মেয়রের সমর্থকরা দলের ভিতর কিছুটা বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পরে যান। একই সাথে বিঘ্নিত হয় সিটি কর্পোরেশনের উন্নয়ন ও স্বাভাবিক কার্যক্রম।  

মেয়র জাহাঙ্গীরের এই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে দেশের ভিন্ন ভিন্ন জেলাইয় তথা গাজীপুর, পঞ্চগড়, রাজবাড়ী, নওগা, মাদারীপুর ও গোপাল্গঞ্জে মোট সাতটি মামলা করা হয় তার বিরুদ্ধে। উল্লেখ্য প্রতিটি মামলায় তিনি ইতিমধ্যেই জামিন পেয়েছেন।  

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button