ব্রাজিলের এবারের লক্ষ্য আর্জেন্টাইন কোচ

ব্রাজিলের এবারের লক্ষ্য আর্জেন্টাইন কোচ

বাস্তবতা কতটুকু তা এখনও জানা না গেলেও খুবই চাঞ্চল্যকর তথ্য হলো ব্রাজিলের বর্তমান লক্ষ্য হলো একজন আর্জেন্টাইন কোচ নিয়োগ দেয়া। অর্থাৎ ব্রাজিল দলকে গাইড করবেন একজন আর্জেন্টাইন কোচ। 

গত ৪ বারের বিশ্বকাপ এ তিনবারই কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে ছিটকে পরে ব্রাজিল। আর গত দুই বিশ্বকাপে ব্রাজিলের উন্নতি না হওয়ায় দায়িত্ব থেকে সরে জান বর্তমান কোচ তিতে।  এমতাবস্থায় ব্রাজিল দলের মূল আলোচনার বিষয় হলো জাতীয় দলের হাল ধরবেন কে? কে হবেন ব্রাজিলিয়ানদের নতুন কোচ? আগামী বিশ্বকাপে কে নেইমার, ভিনি জুনিয়র ও রিচার্লিসনদের দায়িত্ব নিবেন তা নিয়ে পুরো ফুতবল দুনিয়াই আগ্রহী। 

শোনা যাচ্ছে সিবিএফ বা ব্রাজিল এর জাতীয় ফুটবল দলের প্রধান কর্তৃপক্ষই এবার ব্রাজিলের বাইরের কাউকে নিয়োগ দেয়ার কথা ভাবছে।  এরই জের ধরে জিনেদিন জিদান থেকে হোসে মরিনহোর নামও আলোচনায় শুনা যাচ্ছে।

তবে এই গুঞ্জনকে আরো জোরদার করে তোলে ফ্রান্সের সংবাদ সংস্থা লেকিপের প্রকাশিত একটি খবর। তাদের সংবাদের সার হলোব্রাজিলের পরবর্তী কোচের দায়িত্বে জিদানের পাশাপাশি দুইজন আর্জেন্টাইনকেও আলোচনায় রাখছে সিবিএফ বা কনফেডারেশন অব ব্রাজিল ফুটবল। এদের এক জনের নাম মারসেল গালার্দো আর অন্যজন হলেন মরিসিও পচেত্তিনো। এই কোচদের কেউই এই মুহুর্তে কোন দলের সাথে কাজ করছেন না বলে জানা গেছে।  তারা যে কোন দলের দায়িত্ব নিতে পারবে এবং যে কোন মূহুর্তে যোগ দিতে পারবে দলের সাথে যা সিবিএফের চাহিদার সাথে মিলে যায়।

লেকিপ তাদের খবরে উল্লেখ করেন, সিবিএফ এই মুহুর্তে এমন একজন কোচ খজছেন যিনি কোন দলের সাথে এই মুহুর্তে জড়িত নয় এবং ব্রাজিলিয়ানদের বাইরের কেউ। সাথে থাকতে হবে কাজ করার পূর্ন অভিজ্ঞতা। এসব চাহিদা মিটিয়ে তালিকায় যাদের নাম শুনা যাচ্ছে তারা হলেন মার্সেলো গালার্দো, টমাস টুখেল, মরিসিও পচেত্তিনো, রাফায়েল বেন্তিজো ও রবার্তো মার্তিনেজ প্রমুখ। কার্লো আঞ্চেলত্তি রিয়াল মাদ্রিদের সাথে চুক্তিবদ্ধ থাকায় এই মুহুর্তে তাকে নিয়ে ভাবা যাচ্ছে না। 

লেকিপের বরাত দিয়ে ব্রাজিলিয়ান সংবাদ প্রতিষ্ঠান দৈনিক লান্সও একই খবর প্রকাশ করেছে।  লেকিপের খবর অনুযায়ী আগামী জানুয়ারির ১০ তারিখের মধ্যে নেইমার ভিনিসিয়াসরা নতুন কোচের দেখা পাবে।

কিন্তু সিবিএফের সম্ভাব্য এই তালিকায় দুই আর্জেন্টাইন কোচ দৌড়ে অন্যান্যদের চেয়ে এগিয়ে আছেন। পচেত্তিনো আর গালার্দো তাদের পেশাজীবনের বড় অংশ ফ্রান্সে কাটিয়েছেন। পচেত্তিনোকে এই বছরের জুলাইতেও পিএসজি এর ডাগ আউটে দেখা গিয়েছে। 

এর আগে গালার্দো আর্জেন্টাইন ক্লাবে  আট বছর রিভার প্লেটের দায়িত্বে ছিলেন। মুলত লাভারেজ, এঞ্জো ও গঞ্জালোদের হাতেখড়িই হয়ে থাকে এই ৪৬ বছর কোচের কাছে। 

তবে গালার্দো এই বছর দায়িত্ব ছেড়ে দেন ক্লাবের। এখন কিছুটা অবসর সময় কাটাচ্ছেন তিনি। বিশ্রামের পর আবার কোচ হিসেবে তাকে মাঠে দেখা যাবে।

গালার্দো ১৯৯৮ ও ২০০২ সালের বিশ্বকাপ দলের মিডফিল্ডার হিসেবে খেলেছেন। স্বপ্ন আছে আর্জেন্টিনার জাতীয় দলের কোচ হিসেবেও দায়িত্ব পালনের। 

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button