যথাসময়ে নির্বাচন না হলে শূন্যতার দায় কে নেবে?

যথাসময়ে নির্বাচন না হলে শূন্যতার দায় কে নেবে?” প্রশ্ন ইসি আলমগীরের 

নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ আলমগীর বলেছেন, “২০২৪ সালের ২৯ জানুয়ারি সংসদের মেয়াদ ৫ বছর পূর্ণ হবে।

যথাসময়ে নির্বাচন না হলে যে শূন্যতার সৃষ্টি হবে তার দায় কে নেবে?” তিনি বলেছেন, দ্বাদশ সংসদ নির্বাচন ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। নয়তো যে শূন্যতা সৃষ্টি হবে তার দায় নির্বাচন কমিশনের কি নেওয়া উচিত? 

রবিবার জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে গোপালগঞ্জ জেলার নির্বাচন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে এ জবাব দেন তিনি।

নির্বাচন না হলে

অবশ্য তিনি জানান, বিএনপি নির্বাচনে আসার কথা ভাবলে তফসিল পুনরায় বিবেচনা করার কথা ভাবা হবে। আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি জানান, নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভাবে করার জন্য যা যা প্রস্তুতি নেওয়া দরকার তা নেবে নির্বাচন কমিশন।

আরো পড়ুনঃ বাংলাদেশের সর্বশেষ ছয়টি নির্বাচনের ফলাফল

সেনাবাহিনী থাকবে কি না সে প্রসঙ্গে তিনি জানান, অতীতে যেহেতু নির্বাচনের সময় সেনাবাহিনী মাঠে ছিল, এবারও থাকবে।

মতবিনিময় সভায় যোগ দেবার আগে তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও মোনাজাতে অংশ নেন। মতবিনিময় সভায় জেলা প্রশাসক ও জেলা রিটার্নিং অফিসার কাজী মাহবুবুল আলম সভাপতিত্ব করেন। 

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button