তুরস্কে ভ্রাম্যমাণ ঘর ও উদ্ধারকারী পাঠাচ্ছে কাতার

তুরস্কে ভ্রাম্যমাণ ঘর ও উদ্ধারকারী ও ১টি ফিল্ড হাসপাতালের সরঞ্জামও পাঠাচ্ছে কাতার।

ভূমিকম্পে বিপর্যস্ত  সিরিয়া  ও তুরস্কে কাতার দশ হাজার ভ্রাম্যমাণ ঘর ও উদ্ধারকারীর দল পাঠাচ্ছে । পাশাপাশি মানবিক সহায়তা ও ১টি ফিল্ড হাসপাতালের সরঞ্জামও পাঠাচ্ছে কাতার। কাতারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী গত মঙ্গলবার এ কথা জানিয়েছেন। একটি বিবৃতিতে তিনি বলেন, “এটা সিরিয়া ও তুরস্কে ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের সহায়তায় কাতারের প্রচেষ্টার অংশ।” খবর ডেইলি সাবাহ।

শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি, কাতারের আমির, তুরস্কের ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের সহায়তা করার জন্য আকাশপথে পণ্য  ও মানুষ  পরিবহন চালুর নির্দেশনা দিয়েছেন। কাতারের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা কিউএনএ’র বরাতে জানা গেছে, কাতার একটি ফিল্ড হাসপাতাল,  ত্রাণ সহায়তা, উদ্ধারকারী দল, শীতকালীন সরবরাহ ও তাঁবু পাঠাচ্ছে।

গত সোমবার ভুমিকম্পের এই ঘটনা ঘটে  সিরিয়ার সীমান্তবর্তী তুরস্কের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে। ভুমিকম্পের মাত্রা রিখটার স্কেলে ৭.৮ ছিলো যা যথেষট শক্তিশালী ছিলো। ভুমিকম্পটি স্থানীয় সময় অনুযায়ী গত সোমবার ভোর ৪ঃ১৭ মিনিটে হয়। ভুমিক্মপের সময়, অধিকাংশ মানুষই ঘুমে ছিল। তুরস্ক ও সিরিয়ায় ভয়াবহ এ ভূমিকম্পে নিহত মানুষের সংখ্যা ১৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। তুরস্কে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২ হাজার ৩৯১জন। সিরিয়ায় ২,৯৯২ জন। দুই দেশ মিলিয়ে এখন পর্যন্ত মোট নিহত ১৫ হাজার ৩৮৩ জন। 

ভূমিকম্পে উভয় দেশে বহু ভবন মাটির সাথে মিশে গেছে। এই ভুমিকম্পের ধ্বংসযজ্ঞের পরিমাণ যা দাড়িয়েছে,, তাতে উদ্ধারকাজে এখনো উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি সম্ভব হয়নি। অত্যন্ত শীতল আবহাওয়ার দরুণ, উদ্ধারকাজ ব্যাহত হচ্ছে। পাশাপাশি উদ্ধার তপরতায় সরকারি ব্যর্থতাও বিদ্যমান।

উদ্ধারকাজের ধীরগতি নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে। মানুষের মধ্যে বাড়ছে ক্ষোভ। মানুষের ক্ষোভ-সমালোচনার মধ্যে গতকাল বুধবার ভূমিকম্পে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোয়ান।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button