উত্তাল রাজনীতির ১/১১ নিয়ে সিনেমা

ইতিহাসের কালো অধ্যায় উত্তাল রাজনীতির ১/১১ নিয়ে সিনেমা

ওয়ান ইলেভেন বা ১/১১, বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতিহাসের এক কালো অধ্যায়। এই শতাব্দীর প্রথম দশকে অর্থা ২০০৭ সালে ঘটে যায় আমাদের রাজনীতির ইতিহাসের ইদানিংকালের সবচেয়ে চাঞ্চল্যকর ঘটনা। বছরটি ছিলো নির্বাচন এর বছর। জামায়াত বি এন পি সেই সময়ে এক তরফা নির্বাচন ব্যবস্থায় মনোনিবেশ করছিলো। এই নিয়ে দেশের রাজনৈতিক পরিমন্ডলে তৈরি হয় অস্থিরতা। একই বছর জানুয়ারির ১ তারিখে দেশব্যাপি ইমার্জেন্সি ঘোষণা করে। নানান অস্থিরতা ও নাটকীয়তাকে উতরে প্রতিষ্ঠিত হয় সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রিত তত্ত্বাবধায়ক সরকার। যার মূলে ছিলেন ফখরুদ্দিন আহমেদ। যা পরবর্তিতে বহুল আলোচিত ওয়ান ইলেভেনের আখ্যা পায়। 

এতদিন পর কেন সেই ঘটনার উত্থাপন করা হচ্ছে? রয়েছে বিশেষ কারণ। এই একই পটভূমিতে তৈরি হতে যাচ্ছে একটি পূর্ণদৈর্ঘ্য বাংলা চলচ্চিত্র। হ্যা ওয়ান ইলেভেনের এই চাঞ্চল্যকর পটভূমিকে এবার সিনেমার পর্দায় ধারণ করা হবে। 

সিনেমাটির নির্মাতার দায়িত্বে রয়েছেন সাংবাদিক কামরুল ইসলাম রিফাত আর অভিনয়ে আছেন প্রখ্যাত অভিনেতা আফজাল হোসেন।।

তবে সেই ঘটনার কতটুকু সিনেমার গল্পে স্থান পাবে তা প্রশ্ন রয়ে যাইয়? কে করবেন মইন ইউ আহ্মেদ ও ফখ্রুদ্দিনের চরিত্র, আফজাল হোসেন? এই প্রশ্নের জবাবে নির্মাতা কামরুল ইসলাম কোন উত্তর ই দেন নি হ্যা বা না তে। তবে মুখ ফুটে শুধু বললেন ছবিটি থ্রিলার ধর্মী হবে। 

বাস্তবিক ওয়ান ইলেভেনের ঘটনা যে কোন সিনেমার রোমাঞ্চকেই হারফ মানায়। 

নির্মাতা বলেন, “ধুরন্ধর রহস্য রোমাঞ্চকর ইতিহাসকে আতশ কাঁচের নিচে ফেলতেই স্পষ্ট দেখা মেলে নায়ক, খলনায়ক, পুলিশ, গোয়েন্দা, লেখক, গণমাধ্যম আর কিছু অসমাপ্ত প্রশ্নের ভুলভ্রান্তি ভরা উত্তর। এই চলচ্চিত্র সে গল্প বলবে। এর বেশি এখনই কিছু বলতে চাই না আমরা।

নির্মাতার সাথে কথা বলে আরো জানা যায়, তিনি এই ছবির গল্প নিয়ে ভাবনা শুরু করেন ২০২১ সালে। গল্পটির সিনেমার জন্য রচনা করেছে হুমায়ুন কবির বিশ্বাস। সংলাপের দায়িত্বে আছেন মোজাফফর হসেন। চিত্রনাট্য সংশোধন ও পরিমার্জন করেছেন চলচ্চিত্রকার যুগল নূরুল আলম আতিক ও মতিয়া বানু শুকু।

রিফাত বলেন, আগামী এপ্রিল-মে মাসের দিকে শুরু হবে ‘ওয়ান ইলেভেন’র শুটিং। তার আগেই ঘোষণা করা হবে সিনেমাটির অন্যান্য শিল্পীর নাম।

উল্লেখ্য, আফজাল হোসেনকে কালেভদ্রেই সিনেমায় পাওয়া গেছে । তার ক্যারিয়ার প্রায়  পাঁচ দশকের। অভিনীত সিনেমার সংখ্যা মোটে ৪টি! সম্প্রতি ‘যাপিত জীবন’ নামে একটি সিনেমায় তিনি কাজ করেছেন। যেটি পরিচালনা করেছেন হাবিবুল ইসলাম হাবিব। এরপর সালাহউদ্দিন জাকীর নির্মাণে ‘অপরাজেয়’ নামের আরেকটি সিনেমায় কাজ শুরু করেন অভিনেতা। 

 

হলি আর্টিজান সিনেমা ও ফারুকী এর কথা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button