অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই জানুন বিস্তারিত

একটি শিশু জন্মের পর থেকে শুরু করে একজন পূর্ণাঙ্গ নাগরিক হিসেবে গড়ে উঠার ক্ষেত্রে রাষ্ট্রের এখতিয়ারে প্রথমে লিপিবদ্ধ করে নেওয়ার প্রক্রিয়াটি হল জন্ম নিবন্ধন। আজকের শিশু তাই আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। তাই জন্মের শুরু থেকে রাষ্ট্র্ব্রের এখতিয়ারে তার নাম লিপিবদ্ধ করা রাষ্ট্রের গুরুদায়িত্বের অন্তর্ভুক্ত। জাতীয় পরিচয়পত্র একজন নাগরিকের ক্ষেত্রে সনদ হলেও প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ার পূর্বে নানান ক্ষেত্রের একজন নাগরিক হিসেবে প্রমাণের ক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন সনদের প্রয়োজন পড়ে। এক সময় হাতে লিখা জন্ম নিবন্ধনের প্রচলন হলেও বর্তমানে ডিজিটালাইজেশন এর যুগে সকল কিছু অনলাইনকেন্দ্রিক হয়ে উঠেছে। আর এ কারণে যদি কোন তথ্যের হেরফের হয়ে থাকে তাহলে আপনি খুব সহজে তা অনলাইনের মাধ্যমেই সংশোধন করতে পারবেন। তাই অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই সম্পর্কে জেনে নেই আজকের আর্টিকেলে।

  • কীভাবে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করবেন?

হোক বিদেশে উচ্চশিক্ষা, কিংবা কোন চাকরি কিংবা কোন কাজ সকল ক্ষেত্রেই ব্যক্তিগত তথ্যের প্রয়োজন পড়ে। আর এক্ষেত্রে জন্মনিবন্ধন একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

কোন তথ্য বিভ্রাটের কারণে হোক, কোন ইনফরমেশন যাচাই কিংবা কারেকশান করাই হোক জন্ম নিবন্ধন যদি যাচাই করতে চান আপনি তা ঘরের বসেই করতে পারবেন। তাই কীভাবে অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করবেন চলুন সে সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক-

১.সবার প্রথমে আপনাকে আপনার মোবাইল ফনের কোন ব্রাউজার থেকে নিম্নোক্ত লিংকে ক্লিক করতে হবে-

https://everify.bdris.gov.bd/

২.ব্রাইজারে অ্যাড্রেসটি ওপেন হবে। ইন্টারফেসে আপনি ৩ টি ইনফরমেশন এড করতে হবে

  • জন্ম নিবন্ধন রেজিস্ট্রেশন নাম্বার
  • জন্ম তারিখ
  • ক্যাপচা

এছাড়াও আপনার জন্ম নিবন্ধন রেজিস্ট্রেশন নাম্বার এবং জন্ম তারিখ প্রদানের মাধ্যমেই আপনার জন্ম নিবন্ধন ডিজিটাল কিনা তা খুব সহজেই যাচাই করতে পারবেন।এক্ষেত্রে জন্ম নিবন্ধন নাম্বার সঠিক হতে হবে। কোন কারণে নাম্বার ভুল হলে কিন্তু পরিপূর্ণ তথ্য শো করবেনা।

চলুন জন্ম নিবন্ধনের ধাপসমূহ সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক –

ধাপ ১

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার ক্ষেত্রে আপনাকে এই লিংকে প্রবেশ করতে হবে। লিংকে প্রবেশের পর একটি ইন্টারফেস দেখতে পারবেন।

ধাপ ২

এই ইন্টারফেসে আপনি ১৭ ডিজিটের ঘরে আপনার জন্মনিবন্ধন নম্বরটি ইনপুট ইডিতে হবে। এক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে যে ১৭ টি ডিজিট এখানে জন্ম নিবন্ধন নাম্বার ইনপুট দিতে হবে। যদি আপনার জন্ম নিবন্ধন ১৭ টি ডিজিট পূর্ণ না করে সেক্ষেত্রে আপনি কীভাবে পূর্ব করতে পারবেন সে বিষয়টি আপনি পেইজের নিচের দিকে দেখতে পারবেন। পরবর্তীতে আপনাকে আপনার জন্মসাল ইনপুট করতে হবে। পেইজে যেভাবে আপনার জন্মসাল দেওয়া হয়েছে( yyyy mm dd।) ঠিক একইভাবে আপনাকে তার ইনপুট দিতে হবে। এক্ষেত্রে বছরে জন্ম শাল তারপর মাস এবং তারপর দিন অনুযায়ী আপনাকে ইনপুট দিতে হবে।

ধাপ ৩

এ ধাপে আপনাকে ক্যাপচা পূরণ করতে হবে। আপনি রোবট কিনা তা যাচাই এর জন্য ওয়েবসাইটগুলো এই ধরনের অপশন এড করা হয়। এই ধাপে আপনাকে কোন যোগ বিয়োগ কিংবা কোন প্রশ্নের উত্তর পূরণ করলে পরবর্তীতে পেইজ ওপেন হয়ে যাবে।

ধাপ ৪

এ ধাপে আপনি আপনার প্রদানকৃত তথ্যগুলো মিলিয়ে নিতে পারেন। পূর্বে প্রদানকৃত তথ্যের সাথে মিলে গেলে আপনি প্রিন্ট করতে পারবেন।, তাছাড়া তথ্য ভুল হলে আপনি চাইলে তা সংশোধন করতে পারেন।

 

আপনি যদি চান তাহলে জন্ম নিবন্ধনের আপনার নাম দিয়ে যাচাই করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে আপনাকে সবার আগে আপনার নিকটস্থ ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা কিংবা সিটি কর্পোরেশন কাউন্সিলর অফিসে যেতে হবে। সেখান থেকে জন্ম নিবন্ধন সার্ভারে আপনার ডাটাবেজ এর নাম সংরক্ষিত রয়েছে। তাই উক্ত ডাটাবেজে আপনার নাম দিয়ে সার্চ করলে নাম এবং জন্ম নিবন্ধন ভিত্তিক তথ্যসমূহ সামনে আসবে। আপনি তা থেকে আপনার প্রদানকৃত তথ্যগুলো মিলিয়ে নিতে পারবেন।

  • জন্ম নিবন্ধন যাচাই কপি ডাউনলোড

উপরের দেওয়া ধাপগুলো অনুসরণ করে যদি আপনি আপনার জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারেন তাহলে বুঝতে পারবেন যে আপনার জন্ম নিবন্ধনটি ডিজিটালাইজ। সেক্ষেত্রে আপনি আপনার সুবিধামতো আপনার নিকটস্থ ইউনিয়ন, পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশনে ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন কপিটি সংগ্রহ করে নিন।

আপনার অনলাইন কপিটি ডাউনলোড করার জন্য ইন্টারফেসটি আসার সাথে আপনার কম্পিউটার থেকে ctrl+P) দিয়ে Print to PDF সিলেক্ট করে PDF File সেইভ করতে পারেন।পরবর্তী তা প্রিন্ট করলেই আপনি ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন সনদ পেয়ে যাবেন।

  • শেষকথা-

বেশ কয়েক বছর আগে জন্ম নিবন্ধন শুধু হাতে লেখা হতো এবং পরবর্তীতে তা অনলাইন ডাটাবেইজে সংরক্ষণ করে রাখা হতো। হাতে যে জন্ম সনদ লেখা হতো সেখানে নিবন্ধনগুলো ১৩/১৬ ডিজিটের ছিল। কিন্তু জনসংখ্যা বেড়ে যাওয়াতে সে সংখ্যা ১৭ ডিজিটে রূপান্তরিত হয়েছে। যেহেতু সকল তথ্যসমূহ এখন অনলাইন বেইসড তাই আপনার নিবন্ধন নাম্বার ১৬ ডিজিটের হয়ে আজই তা ১৭ ডিজিটের করে আপনার ডিজিটাল জন্ম নিবন্ধন সংগ্রহ করে নিন।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button